সেকশন

বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১
Independent Television
ad
ad
 

বিপন্নতায় মিঠা পানির ডলফিন

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ০১:৫২ পিএম
দেশের জলসীমায় বাস করছে সাত প্রজাতির ডলফিন। তবে মিঠা পানির ইরাবতী ও গাঙ্গেয় শুশুকের সংখ্যা বিশ্বে সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশে। সম্প্রতি বনবিভাগ ও ইন্টারন্যাশনাল ই্‌উনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার (আইইউসিএন) এর যৌথ জরিপে উঠে এসেছে এই তথ্য। তবে জেলেদের কারেন্ট জালে আটকা পড়ে মারা পড়ছে এই স্তন্যপায়ী প্রাণী।

পিঠ দেখিয়ে পানিতে ডুব-সাঁতার দেয়া এই প্রাণীটির নাম ডলফিন। নদীর মোহনা বা সাগরে মেলে স্তন্যপায়ী এই প্রাণীর দেখা।

দেশের জলসীমায় বাস করে ৭ প্রজাতির ডলফিন আর এর মধ্যে সঙ্কাটাপন্নের তালিকায় আছে ইরাবতী ও গাঙ্গেয় শুশুক। গঙ্গা, মেকং ও ইরাবতী নদী ছাড়াও সুন্দরবনের নোনা-মিঠা পানির মোহনায় আছে ৭ হাজার ইরাবতী, এর ৬ হাজারেরই বাস বাংলাদেশের সীমানায়। তবে এরা মারা পড়ছে মাছ ধারার কারেন্ট জালে আটকে।

মিঠা পানিতে গাঙ্গেয় শুশুক আর নোনা পানিতে আছে ইন্দো-প্যাসিফিক হাম্পব্যাক , বোতল নাক ডলফিন, চিত্রা ও রাফ টুথেড ডলফিন। এদের রক্ষায় বঙ্গোপসাগরের সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড, পশুর নদী থেকে ঢাংমারি, চাঁদপাই, দুধমুখী অভয়ারণ্যসহ সুন্দরবনের ১০ বর্গকিলোমিটার এলাকা এবং পদ্মা, মেঘনা, যমুনার মোহনায় ৭টি হটস্পট ঘোষণা করেছে বন বিভাগ ও ইউএনডিপি। এসব এলাকায় ভারী নৌযান চলাচল নিয়ন্ত্রণের পরামর্শ গবেষকদের।

বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনের ৩৭ ধারায় ডলফিন হত্যায় সর্বোচ্চ ৩ বছর কারাদণ্ড ও তিন লাখ টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে। আর দেহের কোনো অংশ সংগ্রহ, মজুদ ও ক্রয়-বিক্রয়ে হবে ২ বছরের জেল।

/এইচ.এ/
ইতালির দক্ষিণ উপকূলে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের বহনকারী দুটি নৌকা ডুবে মৃত ১১ জনের মধ্যে ৩ জন মাদারীপুরের। মৃতদের পরিবারগুলোতে চলছে শোকের মাতম। মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছেন স্বজনেরা।
বিএনপি ভারতের সঙ্গে সমস্যা তৈরি করে দেশের ক্ষতি করছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ, ঢাকা জেলা...
লোডিং...

এলাকার খবর

 
By clicking ”Accept”, you agree to the storing of cookies on your device to enhance site navigation, analyze site usage, and improve marketing.