সেকশন

সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
Independent Television
ad
ad
 

নারী-শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে দুর্ভোগ

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০১৮, ১২:২৮ পিএম
এজলাস সংকটে ভুগছে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করতে ট্রাইব্যুনাল সংখ্যা বাড়ানো হলেও এজলাস না থাকায় হয়রানিতে পড়ছেন বিচারপ্রার্থীসহ আদালত সংশ্লিষ্টরা। একটি এজলাসে সময় ভাগ করে চলছে দুটি করে ট্রাইব্যুনাল।

রূপা বেগম সকাল থেকে মামলার শুনানির অপেক্ষা করে ক্লান্ত। তার মামলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল- ৫ এ বিচারাধীন। কিন্তু একই এজালাসে দুপুর পর্যন্ত চলে ট্রাইব্যুনাল ৩-এর বিচার। দুই আদালতের কাজ একই এজলাসে চলায় রূপার মতোই ভোগান্তিতে অনেক বিচার প্রার্থী ও আইনজীবীরা।

মামলা জট কমাতে ও দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে এ বছরের শুরুতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ৫ থেকে বাড়িয়ে ৯টি করা হয়েছে। তবে, অতিরিক্ত চারটির এজলাস না থাকায়, আগের ৫টিতেই কর্মঘণ্টা ভাগ করে চলে বিচার কাজ। এতে জটিলতা আরো বেড়েছে বলে অভিযোগ আইনজীবীদের।

একটি ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম পরিচালনায় সময় পাওয়া যাচ্ছে দুই থেকে আড়াই ঘণ্টা। প্রতিদিন এ সময়ে ২৫ থেকে ৩০টি মামলা শুনানির সময় থাকে মাত্র চার থেকে ৫ মিনিট। তবে সংকট সমাধানে কাজ চলছে বলে জানান ঢাকা মহানগরের সরকারী কৌশলি।

সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা প্রায় ১২ হাজার। নতুন ট্রাইব্যুনালে এজলাস সংকটের পাশাপাশি রয়েছে অফিস কক্ষ ও জনবল সংকট।

/এ এইচ/

ঈদুল আজহায় মুক্তি পেয়েছে শাকিব খান অভিনীত অ্যাকশনধর্মী সিনেমা ‌‘তুফান’। মুক্তির পর থেকেই এটি দাপটের সঙ্গে সিনেমা হল মাতাচ্ছে। তবে এতে নৃশংসভাবে ‘মুণ্ডু কাটা’র দৃশ্য থাকায় পড়তে হয় সমালোচনার মুখে।...
সারা দেশ থেকে মেধাবীদের খুঁজে বের করে আগামীর জন্য প্রস্তুত করার তাগিদ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার দায়িত্ব নেওয়ার পর শিক্ষা ব্যবস্থাকে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে...
জার্মানিতে কবুতর মেরে ফেলতে গণভোট হয়েছে। সেই ভোটে কবুতর মেরে ফেলার পক্ষে ভোট দিয়েছেন শহরের বাসিন্দারা। অন্যদিকে এ ধরনের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করছেন প্রাণী অধিকার কর্মীরা। এ নিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে...
মহাবিশ্বের শুরুর দিকে ছায়াপথ কেমন ছিল, কেমন ছিল গ্যালাক্সিগুলোর গঠন—তা যদি দেখা যেত? মানুষের কৌতুহলী মন সব সময় এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজেছে। এবার মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার জেমস ওয়েব স্পেস...
লোডিং...

এলাকার খবর

By clicking ”Accept”, you agree to the storing of cookies on your device to enhance site navigation, analyze site usage, and improve marketing.