সেকশন

মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
Independent Television
ad
ad
 

বিশ্বের সবচেয়ে বড় বার্ন ইনস্টিটিউটের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৩২ পিএম
সর্বাধুনিক চিকিৎসা সুবিধা নিয়ে যাত্রা শুরু করল দেশের প্রথম বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট। ৫০০ শয্যার এ চিকিৎসাকেন্দ্রে শিক্ষা ও গবেষণার সুযোগও থাকবে। রাজধানীর চাঁনখারপুলে সকালে এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে থাকছে পোড়া রোগীদের জন্য বিশ্বমানের সেবা। আছে ১০টি অত্যাধুনিক অস্ত্রোপচার কক্ষ, ২০ শয্যার আইসিইউ, ২৪ ঘন্টা ইমার্জেন্সি ভর্তিসহ ল্যাব টেস্ট ও ব্লাড ব্যাংক সুবিধা। পোড়া রোগীর ব্যাথামুক্ত ড্রেসিং এবং দেশের সবচেয়ে বড় অত্যাধুনিক অক্সিজেন চেম্বারও রয়েছে এখানে।

দগ্ধ ও দুর্ঘটনায় আহত রোগীদের দ্রুত হাসপাতালে আনতে থাকছে হেলিপ্যাডের ব্যবস্থা। মাইক্রোসার্জারির মাধ্যমে জোড়া লাগানো যাবে বিচ্ছিন্ন হওয়া অঙ্গ। এছাড়া দগ্ধ রোগীর সংক্রমণ প্রতিরোধে এখানে রয়েছে চামড়া প্রতিস্থাপনের ব্যবস্থা। এশিয়ার সবচেয়ে বড় মাইক্রোসার্জারি ল্যাব বসছে এখানে। এখন থেকেই বর্হিবিভাগে চিকিৎসা সেবা পাবেন রোগীরা। তবে হাসপাতাল চালু হতে সময় লাগবে আরও ৬ মাস।

২০১৬ সালে ৬ এপ্রিল শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের ভিত্তি স্থাপন হয়। এর মাত্র আড়াই বছরের মধ্যে ১৮ তলা ভবনের উদ্বোধনকে স্বপ্নপূরণের দিন হিসাবে অভিহিত করেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা জানান, ইন্সটিটিউটটিকে পর্যায়ক্রমে ঢেলে সাজানো হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিএনপি-জামায়াতের জ্বালাও পোড়াও আন্দোলনের সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, মানুষ পুড়িয়ে মারার রাজনীতি আর করতে দেয়া হবে না।

/এ এইচ/
পাবনার মালিগাছা ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের গরু খামারি মো. মিলন মিয়া। এবার কোরবানি ঈদের জন্য প্রস্তুত করেছিলেন ৪০টি বড় সাইজের গরু। তিনি এবার বিক্রি করতে পেরেছেন ১৬টি।  বাকি ২৪টি গরু অবিক্রিতই...
কিশোরগঞ্জের ভৈরবে সোমবার সাতদিন বয়সী নবজাতক সন্তানকে পাশে নিয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন মা তৃষা বেগম। ভোর তিনটায় ঘুম ভাঙলে বিছানায় সন্তানকে না দেখতে পেয়ে যান স্বামীর ঘরে। সেখানে সন্তানকে না পেয়ে শুরু...
লোডিং...

এলাকার খবর

 
By clicking ”Accept”, you agree to the storing of cookies on your device to enhance site navigation, analyze site usage, and improve marketing.