সেকশন

বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
Independent Television
ad
ad
 

এয়ারবাসের এ–৩৪০ উড়োজাহাজ কি হারিয়ে যাবে

আপডেট : ০৭ মে ২০২৪, ০৮:২৪ পিএম

করোনা মহামারির মধ্যে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছিল ফ্রান্সের উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এয়ারবাসের এ–৩৮০ মডেলের জাম্বোজেট উড়োজাহাজ। তবে, পরে আবারও এই মডেলের উড়োজাহাজ উৎপাদনে ফেরে এয়ারবাস। এবার প্রতিষ্ঠানটির এ–৩৪০ উড়োজাহাজগুলো নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। 

প্রায় ৩০ বছর আগে এ–৩৪০ মডেলের উড়োজাহাজের উৎপাদন শুরু করে এয়ারবাস। প্রথম ক্রেতা ছিল জার্মানির লুফথানজা ও এয়ার ফ্রান্স। ২০১২ পর্যন্ত মডেলটির মাত্র ৩৮০টি উড়োজাহাজ উৎপাদন করা হয়। অথচ ২০১৫ সালে উৎপাদনে আসা এ–৩৫০ মডেলের ৫৬৫টি তৈরি করে ফেলেছে এয়ারবাস। 

এ–৩৪০ নিয়ে শুরু থেকেই এয়ারলাইনসগুলোর তেমন আগ্রহ ছিল না। তারপরও এটি নিয়ে এয়ারবাসের উচ্চাশা ছিল অনেক বেশি। প্রতিষ্ঠানটি মনে করেছিল, মডেলটি বুড়ো হয়ে যাওয়া বোয়িং ৭৪৭ এবং ডিসি–১০ উড়োজাহাজের বিকল্প হতে পারবে। দীর্ঘ পাল্লার উড়ানে সক্ষম হিসেবেই এ–৩৪০ মডেলটি তৈরি করা। 

১৯৯৩ সালে যখন প্রথম এ–৩৪০ উড়োজাহাজের বাণিজ্যিক ব্যবহার শুরু হয়, তখনই এটি প্যারিস এয়ার শো থেকে নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড পর্যন্ত উড়াল দিয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেয়। সেবার যাওয়া ও আসা মিলিয়ে প্রায় ৪২ ঘণ্টা আকাশে ছিল এই উড়োজাহাজ। এটিই ছিল ইউরোপ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে চলা প্রথম ও দীর্ঘতম বিরতিহীন ফ্লাইট, যা একটি রেকর্ড।  

শুরুতে উড়োজাহাজটি দীর্ঘ পাল্লার বিরতিহীন ফ্লাইটের জন্য বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। কিন্তু শিগগিরই দেখা যায়, এর চারটি ইঞ্জিনের জ্বালানি খরচ অনেক বেশি। একই সময় দুই ইঞ্জিনের জেট উড়োজাহাজগুলোও আরও কম খরচে প্রায় একই সুবিধা দিতে শুরু করে। 

২০০০ সালের মধ্যে এ–৩৪০ উড়োজাহাজের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ওঠে বোয়িংয়ের ৭৭৭ মডেলের উড়োজাহাজটি। সে সময় প্রতি ১০টি ৭৭৭–এর বিপরীতে তখন একটি এ–৩৪০র ক্রয়াদেশ এসেছিল। ১৯৯৭ সালে সিয়াটল থেকে কুয়ালালামপুরে উড়াল দিয়ে এ–৩৪০ এর দীর্ঘতম ফ্লাইটের রেকর্ডটিও দখল করে নেয় বোয়িং ৭৭৭। 
 
অ্যাভিয়েশন ভ্যালুস নামে একটি সংস্থার অ্যাভিয়েশন বিশ্লেষক গ্যারি ক্রিচলো বলছেন, ‘এ–৩৪০ কে বিদায় নিতে হয়, কারণ টুইনজেটগুলো তার মিশন আরও ভালোভাবে সম্পন্ন করছে।’ 
 
অ্যাভিয়েশন খাত নিয়ে গবেষণা করা প্রতিষ্ঠান ক্রিমিয়ামের দেওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিশ্বের ১৭টি এয়ারলাইনসের কাছে মাত্র ৬৪টি এ–৩৪০ উড়োজাহাজ ছিল। 

২০১৯ সালের আগেও এর দ্বিগুন উড়োজাহাজ ফ্লাইট পরিচালনায় ব্যবহার হতো। লুফথানজা এখনো এই মডেলের ১০টি উড়োজাহাজ ব্যবহার করছে। তবে এয়ার ফ্রান্স, আইবেরা, সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনস, ভার্জিন আটলান্টিকের মতো শীর্ষ এয়ারলাইনসগুলো এরই মধ্যে মডেলটিকে বিদায় করেছে। 

এ–৩৪০ মডেলের প্রথম ক্রেতা ছিল জার্মানির লুফথানজা ও এয়ার ফ্রান্স। ছবি: সংগৃহীত

মডেলটি যে অচিরেই বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে, তার আরেকটি লক্ষণ হচ্ছে, ২০০৩ সালে এই মডেলের একটি ভার্সন এ–৩৪০–৫০০ নিয়ে আসে এয়ারবাস। তবে কোনো এয়ারলাইনসই এখন আর এটিতে আগ্রহী নয়।  

২০০৪ থেকে ২০১৩ পর্যন্ত সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনস এ–৩৪০–৫০০ দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা রুট নিওয়ার্ক–সিঙ্গাপুরে ফ্লাইট পরিচালনা করত। অ্যাভিয়েশন বিশ্লেষক গ্যারি ক্রিচলো বলেন, ‘রুটটি সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনস বন্ধ করে দেয়। কারণ এটিতে খরচের বিবেচনায় তেমন লাভ আসছিল না। বিশেষ করে ফুয়েলের খরচ ছিল অনেক বেশি।’ 

চার ইঞ্জিনের জেটগুলো বিলুপ্তির আরেকটি কারণ হলো, টুইন ইঞ্জিন জেট যেমন ৭৮৭ এবং এ–৩৫০ মডেলগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও উন্নত। মাঝ আকাশে একটি বা দুটি ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে গেলেও এগুলো বেশি সময় ভেসে থাকতে পারে। আগে চার ইঞ্জিনের জেটগুলো এক্ষেত্রে বেশ সুবিধাজনক অবস্থায় ছিল। 

গ্যারি ক্রিচলো বলেন, ‘পরিষ্কারভাবে টুইনজেটের একটি ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যাওয়া আর কোয়াডজেটের একটি বন্ধ হওয়ার মধ্যে অনেক পার্থক্য। কিন্তু ১৯৯০ সালে বাজারে আসা বোয়িং ৭৭৭ গুলোর নির্দিষ্ট কিছু অপারেটরের তিন ঘণ্টা পর্যন্ত এক ইঞ্জিনেই ভেসে থাকার অনুমতি আছে।’ 

ক্রিচলো জানান, এখন পর্যন্ত উৎপাদন হওয়া ৩৪টি এ–৩৪০–৫০০ উড়োজাহাজের মধ্যে মাত্র ৮টি এখনও টিকে আছে। এর মধ্যে আজারবাইজার এয়ারলাইনস দুটি ব্যবহার করছে। তবে ২০২২ সালের নভেম্বর থেকে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত এগুলোকে বসিয়ে রাখতে হয়েছে। 

বাকি ৬টির মধ্যে ৫টি বিভিন্ন দেশের সরকার ব্যবহার করছে। আর একটি রাখা হয়েছে ভিআইপি ফ্লাইটের জন্য। 
 
এতো কিছুর পরেও এই মডেলটির কিছু ভ্যারিয়েন্ট এখনও টিকে আছে। চার্টার্ড এয়ারলাইন হাইফ্লাই এ–৩৪০–৩০০ দিয়ে চ্যালেঞ্জিং রুট অ্যান্টার্কটিকায় ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে। এই ফ্লাইটগুলোতে মুলত বিজ্ঞানী ও পর্যটকদের ছোট দলগুলোকে নেওয়া হয়।

গত বছরের মে মাসের তুলনায় চলতি বছরের মে মাসে রাশিয়ার জ্বালানি থেকে আয় বেড়েছে প্রায় ৫০ শতাংশ। পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও রাশিয়ার এ অর্জনক ‘অভাবনীয়’ বলছেন বিশ্লেষকেরা।
আকাশপথে আমেরিকার নিউইয়র্কের সাথে যুক্ত হতে অনেক দিন ধরেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ঢাকা। কিন্তু বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষকে (বেবিচক) মার্কিন কর্তৃপক্ষ ক্যাটাগরি-১ এ উন্নীত না করায় এ চেষ্টা এখনো...
রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ কাজের ৯৭ ভাগ কাজ সমাপ্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খান। বৃহস্পতিবার তৃতীয়...
মার্কিন নির্মাতা বোয়িং এবং ইউরোপীয় নির্মাতা এয়ারবাস, দুটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকেই উড়োজাহাজ কেনার প্রস্তাব পেয়েছে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী প্রতিষ্ঠান বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। শেষ পর্যন্ত কার কাছ থেকে...
মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় থ্রি-অ্যাঙ্গেল মেরিন লিমিটেডের মালিকানাধীন শিপইয়ার্ড থেকে টি. টেকনাফ নামের একটি জাহাজ (একটি পুরাতন ওয়েল ট্যাংকার) উধাও হয়ে গেছে। এই ঘটনায় জাহাজটির মালিকপক্ষ বেঙ্গল ইলেকট্রিক...
আগামীকাল শুক্রবার শুরু হচ্ছে পবিত্র হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা। আজ বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৭ জিলহজ রাত থেকেই মক্কা থেকে হজযাত্রীরা তাবুর শহর মিনার উদ্দেশে রওনা হবেন। এশার নামাজের পর মক্কার নিজ নিজ আবাসন থেকে...
বর্তমান ডিজিটাল যুগে যাতায়াতের সুবিধার্থে অ্যাপের মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভাড়া পাওয়া যায় প্রাইভেট কার, মোটরসাইকেল কিংবা সিএনজিচালিত অটোরিকশা। তবে এবার অ্যাপের মাধ্যমে হেলিকপ্টার ভাড়া করার...
ঘোষিত হলো ২০২৩-২৪ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পাওয়া চলচ্চিত্রের তালিকা। অনুদান পেতে যাচ্ছে নির্বাচিত ২০টি সিনেমা। এর মধ্যে ১৬টি ছবির প্রযোজকরা পাচ্ছেন ৭৫ লাখ টাকা করে। আর বাকি ৪টি সিনেমার প্রযোজকরা...
লোডিং...

এলাকার খবর

 
By clicking ”Accept”, you agree to the storing of cookies on your device to enhance site navigation, analyze site usage, and improve marketing.