সেকশন

মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
Independent Television
ad
ad
 

আইআরআই-এনডিআইয়ের প্রতিবেদন

জানুয়ারির নির্বাচন আগের চেয়ে কম সহিংস ছিল

আপডেট : ১৭ মার্চ ২০২৪, ০৪:০১ পিএম

গত ৭ জানুয়ারি বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আগের নির্বাচনের তুলনায় কম সহিংস হয়েছে। এই নির্বাচনের সময়, আগে ও পরে শারীরিক ও অনলাইন সহিংসতা আগের চেয়ে কম ছিল। এমনটাই বলছে নির্বাচন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য আসা ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ইনস্টিটিউট (এনডিআই) এবং ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউটের (আইআরআই) টেকনিক্যাল অ্যাসেসমেন্ট মিশন (টিএএম)।

আমেরিকার অলাভজনক বেসরকারি সংস্থা ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ইনস্টিটিউট (এনডিআই) শনিবার তাদের পর্যবেক্ষণের চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এতে বিভিন্ন ধরনের নির্বাচনী সহিংসতার বিষয়ভিত্তিক বিশ্লেষণ তুলে ধরা হয়। 

এ ছাড়া ভবিষ্যতে নির্বাচনে সহিংসতার ঝুঁকি কমানো, আন্তর্জাতিক সহযোগিতা ও বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে নির্বাচন কমিশন, সরকারের নির্বাহী ও আইন বিভাগ, রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজ ও অন্যান্য অংশীজনদের কিছু সুপারিশও করা হয়েছে প্রতিবেদনে।

নির্বাচনে সহিংসতা কম হওয়ার কারণ হিসেবে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, প্রাথমিকভাবে দেশব্যাপী কার্যকর নির্বাচনী প্রতিযোগিতার অনুপস্থিতি এবং নিরাপত্তায় সরকারের বাড়তি নজর। 

তবে, তা সত্ত্বেও গত জানুয়ারির নির্বাচনের গুণগত মান ক্ষুণ্ন হয়েছে বলে মনে করছে তারা। এর কারণ, রাষ্ট্র, শাসক দল, ও বিরোধীদের সহিংসতা। সেইসাথে প্রাক-নির্বাচন পরিবেশের চিহ্নিত শূন্য-সমষ্টির রাজনীতি, রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে সহিংসতা, নাগরিক স্বাধীনতার সংকোচন এবং বাক স্বাধীনতা ও সংগঠিত হওয়ার স্বাধীনতার অবনতি এর কারণ।

প্রতিবেদনের ব্যাপারে এনডিআইয়ের এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক মনপ্রীত সিং আনন্দ বলেন, ‘প্রতিবেদনটি ভবিষ্যতে বাংলাদেশে আরও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের একটি মূল্যবান রোডম্যাপ হিসেবে অবদান রাখবে।’

আইআরআইর এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় বিভাগের জ্যেষ্ঠ পরিচালক জোহানা কাও বলেন, ‘নির্বাচনে সহিংসতা নাগরিকদের অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে একটি প্রধান প্রতিবন্ধক। বাংলাদেশের নির্বাচনকে পুরোপুরি অংশগ্রহণমূলক করতে হলে সব পক্ষকে অহিংস রাজনীতিকে প্রাধান্য দিতে হবে।’

বাংলাদেশে অবস্থানকালে টিএএম-এর স্বীকৃত পাঁচজন দীর্ঘমেয়াদী বিশ্লেষক নির্বাচন ও সরকারি কর্মকর্তা, নিরাপত্তাকর্মী, রাজনৈতিক পরিমন্ডলে রাজনৈতিক দলের নেতা, সাংবাদিক, নাগরিক সমাজের সংগঠনসহ যুবক, নারী, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের পাশাপাশি স্বীকৃত আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক মিশনের সাথে বৈঠক করেছেন।

আইআরআই এবং এনডিআই হলো নির্দলীয়, বেসরকারি সংস্থা যা বিশ্বব্যাপী গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান এবং অনুশীলনকে সমর্থন ও শক্তিশালী করে। এই দুটি ইনস্টিটিউট গত ৩০ বছরে ৫০টিরও বেশি দেশে সম্মিলিতভাবে ২০০টিরও বেশি নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করেছে।

পুরো প্রতিবেদন পড়ুন এখানে

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদকে বিদায়ী সংবর্ধনা জানিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট, রেজিমেন্ট অব আর্টিলারি এবং কোর অব মিলিটারি পুলিশ। রোববার সকালে চট্টগ্রাম...
পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। চিঠি পাঠিয়ে এই শুভেচ্ছা জানান মোদি। ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশনের ফেসবুক পেজের এক...
এখন থেকে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, কানাডাসহ নানা দেশে লাইসেন্সধারী হিসেবে কাজ করতে পারবেন বাংলাদেশের প্রকৌশলীরা। স্কিল মাইগ্রেশনের পাশাপাশি শীর্ষ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পাবেন পড়াশোনা, গবেষণা ও...
আগামীকাল শুক্রবার শুরু হচ্ছে পবিত্র হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা। আজ বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৭ জিলহজ রাত থেকেই মক্কা থেকে হজযাত্রীরা তাবুর শহর মিনার উদ্দেশে রওনা হবেন। এশার নামাজের পর মক্কার নিজ নিজ আবাসন থেকে...
কিশোরগঞ্জের ভৈরবে সোমবার সাতদিন বয়সী নবজাতক সন্তানকে পাশে নিয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন মা তৃষা বেগম। ভোর তিনটায় ঘুম ভাঙলে বিছানায় সন্তানকে না দেখতে পেয়ে যান স্বামীর ঘরে। সেখানে সন্তানকে না পেয়ে শুরু...
লোডিং...

এলাকার খবর

 
By clicking ”Accept”, you agree to the storing of cookies on your device to enhance site navigation, analyze site usage, and improve marketing.