সেকশন

রোববার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
Independent Television
ad
ad
 

দাবি পূরণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্মারকলিপি কাতার প্রবাসীদের

আপডেট : ১৫ মে ২০২৪, ০৪:২১ পিএম

কাতার প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ১৪ দফা দাবি সম্বলিত একটি স্মারকলিপি রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে পেশ করা হয়েছে। একইসঙ্গে দাবি আদায়ের জন্য কাতারস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণে গণঅনশন কর্মসূচি পালন করেছে কাতার আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ ও কাতার আওয়ামী পরিবার।

গত ১২ মে সকাল ১০টা থেকে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণে শফিকুল ইসলাম প্রধানের নেতৃত্বে কাতার আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন মিলে প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে গণঅনশন কর্মসূচি পালন করে। বেলা ১১টায় রাষ্ট্রদূত দূতাবাসে আসলে নেতারা তাঁর হাতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে লেখা প্রবাসীদের বিভিন্ন দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি তুলে দেয়। স্বারকলিপিটি গণমাধ্যমের উদ্দেশ্যে পাঠ করে শোনান সংগঠনের সভাপতি সফিকুল ইসলাম প্রধান।

স্মারকলিপিতে নেতারা আশা প্রকাশ করেন যে, কাতারে চার লাখ প্রবাসীর বিভিন্ন সমস্যাসহ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা প্রবাসীদের প্রবাসে ও দেশে যেসব সমস্যা আছে তা প্রধানমন্ত্রীর কর্ণগোচর হলে তা অচিরেই সমাধান হবে।

শফিকুল ইসলাম প্রধান আওয়ামী লীগ সরকারকে প্রবাসীবান্ধব সরকার বলে অভিহিত করে রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের সকল সমস্যা সমাধানে দূতাবাসসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে একযোগে কাজ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশাল করার আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রদূত মো. নজরুল ইসলাম ধৈর্য ধরে স্মারকলিপিতে উল্লিখিত বক্তব্য শোনেন ও প্রধানমন্ত্রীর ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কাছে তা পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেন। দূতাবাসের পক্ষ থেকে তিনি সর্বোচ্চ সেবাদানেরও আশ্বাস দেন তিনি। 
পরে রাষ্ট্রদূতের অনুরোধের প্রেক্ষিতে নেতারা গণঅনশণ ভঙ্গ করে।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কাতার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক  ইয়াছিন খান পাশা, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু ইউসুফ বাবুল, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি শাহ আলম, ইফতেখার মারুফ, লেবু মিয়া, মহিবুর রমহান স্বপন সহ শতাধিক নেতাকর্মীরা।

স্মারকলিপিতে উল্লিখিত দাবিসমূহ:
১. বাংলাদেশ দূতাবাসের কোনো নিজস্ব ভবন না থাকায় কাতারের আল হেলাল এলাকায়  প্রায় দুই যুগ আগে ফ্যমিলি এরিয়ায় ভাড়া নেওয়া বাড়িটি এখন চার লক্ষাধিক প্রবাসীর চাহিদা পূরণে অপ্রতুল। সময়ের প্রয়োজনে বিস্তৃত কলেবরে নতুন বাড়ি ভাড়া নেওয়া এখন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাড়ির আগের চুক্তি শেষ হলেও এখনও নতুন চুক্তি হয়নি। বাড়িওয়ালা চাপ দিচ্ছে দ্রুত তিন বছরের চুক্তি করার জন্য। তা না হলে যে কোন সময় বাড়িওয়ালা দূতাবাস তালাবদ্ধ করে দিতে পারে। চুক্তি করলে তিন বছরের আগে এখান থেকে বের হওয়া সম্ভব নয়। বাড়িটির সীমিত কক্ষ থাকায় প্রবাসীদের জন্য উপযুক্ত অভ্যর্থনা কক্ষ নেই। খরতাপে কক্ষের বাইরে দাঁড়িয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়। তাই দেশের সম্মান ও প্রবাসীদের স্বার্থ সংরক্ষণে দ্রুত বর্ধিত কলেবরে উন্মুক্ত স্থানে পর্যাপ্ত পার্কিং-এর ব্যবস্থাসম্পন্ন দূতালয় ভাড়া নেওয়া দরকার। এ ব্যাপারে দ্রত সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আমরা দাবি জানানো হয়েছে। 

২. কাতারে প্রতি বছর প্রবাসীর সংখ্যা বাড়ছে। বাড়ছে  প্রবাসী আয়। বাড়েনি প্রবাসীদের সেবার মান। দুই লাখ প্রবাসীর সেবার জন্য যে জনবল ছিল তা চার লক্ষাধিক প্রবাসীর সেবাদান করে আসছে। কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরলস পরিশ্রম করে গেলেও প্রতিদিন শতশত প্রবাসী চাহিদা পূরণে ব্যর্থ হচ্ছে। প্রচণ্ড গরমে লাইন ধরে দাঁড়িয়ে থেকে শেষ পর্যন্ত কাজ করাতে না পেরে কর্মস্হলে ম্লানমুখে ফেরত যাচ্ছে প্রবাসীরা। লোকবল সংকটের কারণে ই-পাসপোর্ট, এনআইডি কার্ডের মতো গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হাতে পেতে কাতার প্রাবসীদের বেশ কয়েক বছর অপেক্ষার প্রহর গুণতে হবে। বেশিরভাগ প্রবাসী ছুটি নিয়ে দূতাবাসে আসে। ছুটি পাওয়া তাদের জন্য ভাগ্যের ব্যাপার। অধিকন্তু একদিন ছুটি কাটালে অনেক কোম্পানি দুই দিনের বেতন কাটে। ক্রমবর্ধমান প্রাবাসীদের কাজের চাপ মেটাতে দূতাবাসে বর্তমানে যে কর্মকর্তা-কর্মচারি আছে তার দ্বিগুণ কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ এখন প্রবাসীদের অন্যতম দাবি। 

৩. নারী কর্মীদের জন্য দূতাবাসের তত্ত্বাবধানে সার্বক্ষণিক সেইফ হোমের ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে করে বিপদে পড়লে তারা নতুন কাজ না পাওয়া পর্যন্ত এখানে থাকতে পারে বা দেশে পাঠানোর পূর্ব পর্যন্ত তারা সেখানে অবস্থান করতে পারে। দূতাবাসের পক্ষ থেকে তাদের থাকা, খাওয়া, পরা ও নিরাপত্তা দিতে হবে। নারী কর্মীদের বেশিরভাগ নিয়োগকর্তাই আরবি ও ইংরেজি ভাষী। তাই তাদে জন্য সার্বক্ষণিক সার্ভিস দিতে দূতাবাসে ত্রিভাষী (আরবি+ইংরেজি+বাংলা) নারী কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের দাবি জানানো হয়েছে।

৪.  প্রবাসীদের বিনামূল্যে দ্রুত আইনী সহায়তার জন্য বিষয়ভিত্তিক আইনজীবী নিয়োগের দাবি জানানো হয়েছে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারা বিশ্বের প্রবাসীরা যাতে প্রবাস থেকে ভোট দিতে পারে সেজন্য দ্রুততম সময়ের মধ্যে এনআইডি কার্ড সহজ উপায়ে সম্পন্ন করার উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে দাবি জানানো হয়েছে।

৫. বাংলাদেশ বিমানের মাধ্যমে প্রবাসীদের মরদেহে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পরিবহনে দাবি জানানো হয়েছে।

৬. বর্তমান প্রবাসী ও প্রত্যেক প্রবাসফেরত প্রবাসীকে সহজ শর্তে গৃহনির্মাণ, ব্যবসার ক্ষেত্রে প্রবাসীকল্যাণ ব্যাংক থেকে বিনাসুদে ঋণ দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

৭. প্রবাসীদের পরিবার বিভিন্ন সময় প্রতিবেশী, সন্ত্রাসী তথা চাঁদাবাজদের লালসার শিকার হতে হয়। তাই সারা দেশের সকল প্রবাসী পরিবার ও তাদের সম্পদের নিরাপত্তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

৮. প্রতিটি এলাকার সরকারি বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয়, বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ও কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবাসীদের সন্তানরা যাতে সুযোগ পায় সে লক্ষ্যে প্রবাসী কোটা বরাদ্দের দাবি জানানো হয়েছে।

৯. দল-মত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল প্রবাসীর জন্য রাজধানী, বিভাগীয় শহর ও জেলা শহরে সরকারি ফ্ল্যাট ও প্লট সরাসরি বরাদ্দের দাবি জানানো হয়েছে।

১০. প্রবাসী উদ্যোক্তাদের দেশে বিনিয়োগের পরিবেশ নিশ্চিত করতে প্রবাসী উদ্যোক্ত জোন- চালু করে উপযুক্ত বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

১১. প্রবাসীরা নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দেশে পাঠিয়ে সিআইপি উপাধি পাচ্ছে। এটা অত্যন্ত ভালো উদ্যোগ। অনেক প্রবাসী আছে জীবনের একাটা বড় অংশ প্রবাসী সমাজের কল্যাণে (সময়, শ্রম, অর্থ) ব্যয় করছে। তাঁদের কোনো প্রাপ্তি নেই। তাঁরাও তাঁদের কর্মের জন্য যদি সোশ্যালি ইম্পোর্টেন্ট পারসন (এসআইপি) সম্মাননা পায় তবে অনেকেই প্রবাসীদের কল্যাণে আত্মনিয়োগ করতে উৎসাহিত হবে। এটি বাস্তবায়নের জন্য আপনার কাছে জোর দাবি জানানো হয়েছে।

১২. কাতারে বিভিন্ন কমিউনিটির সামাজিক-সাংস্কৃতি-সাহিত্যিক ও বুদ্ধিভিত্তিক নানা কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য কমিউনিটি সেন্টার আছে, যা আমাদের নেই। এ অভাব পূরণে বাংলাদেশ কমিউনিটি সেন্টার স্থাপনের জন্য আমরা আপনার কাছে জোর দাবি জানানো হয়েছে।

১৩. দেশের ব্যবসায়ীরা দেশীয় পণ্য বিদেশে পাঠাচ্ছে প্রতিনিয়ত। এর পরিমাণ আরও বাড়াতে হবে। তবে লক্ষণীয় বিষয় এই যে, কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অতি লাভের আশায় পণ্যমান বজায় রাখছে না। যার ফলে অন্য দেশের পণ্যের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় বাজারে টিকতে পারছে না বাংলাদেশের পণ্য। রপ্তানি পণ্য বাজারে পাঠানের আগে সংশ্লিষ্টদের নজর দেওয়ার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

১৪. বাংলাদেশের বিমানবন্দরগুলোতে বিদ্যমান অবস্থা আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে খুবই নিম্মমানের উল্লেখ করে স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, বিমানবন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিম্নমানের আচরণ প্রবাসীদের প্রতিনিয়তই আহত করে। বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্যের প্রবাসীরা নানাভাবে বিমান ও বিমান বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে ‘মজুর-কামলা’ বলে প্রতিদিন নিগৃহীত হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। 

জার্মানির রাজধানী বার্লিনে গতকাল শুক্রবার বাংলাদেশ দূতাবাসের নিজস্ব ভবন নির্মাণ প্রকল্পের ‘গ্রাউন্ড ব্রেকিং’ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। নির্মিতব্য দূতাবাস ভবনটি বার্লিনের ডিপ্লোম্যাটিক জোন...
বাংলাদেশ ও কুয়েতের সম্পর্কের ৫০ বছর (সুবর্ণ জয়ন্তী) উদযাপনের অংশ হিসেবে হাওয়ালির কুয়েত আর্টস অ্যাসোসিয়েশনে চার দিনব্যাপী এক শিল্প প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাস ও কুয়েত...
সারা বিশ্বের ও কানাডার সাহিত্যপ্রেমিদের শোকের সাগরে ভাসিয়ে চিরবিদায় নিলেন কানাডীয় সাহিত্যিক প্রখ্যাত ছোটগল্প লেখক এলিস মুনরো। ২০১৩ সালে সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী এই লেখক গত সোমবার সন্ধ্যায় টরন্টোর অদূরে...
ফ্রান্স ক্রিকেট বোর্ডের আয়োজনে এমদিনা কাপ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্যারিসের অদূরে দ্রো ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফাইনাল খেলায় মুখোমুখি হয় ফ্রান্স ও বেলজিয়াম। টুর্নামেন্টের মূল স্পন্সর...
ভারতের উত্তরাঞ্চলে প্রচণ্ড তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। দিল্লিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছেছে ৪৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। আগামী পাঁচ দিন দিল্লি, হরিয়ানা, পাঞ্জাব, রাজস্থান ও উত্তর প্রদেশে প্রচণ্ড গরম...
বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে সেনাবাহিনীর সাথে গোলাগুলিতে কুকি–চিন ন্যাশনাল আর্মির (কেএনএ) ৩ সদস্য নিহত হয়েছে। শনিবার রাতে উপজেলার রোনিন পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার মোহাম্মদ কাইফ জানিয়েছেন  বিশ্বকাপের সম্ভাব্য সেমিফাইনালিস্টদের নাম। তবে সেরা চার দলে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকেই রাখেননি মোহাম্মদ কাইফ।
লোডিং...

এলাকার খবর

 
By clicking ”Accept”, you agree to the storing of cookies on your device to enhance site navigation, analyze site usage, and improve marketing.